ঢাকা, শুক্রবার, ১০ এপ্রিল ২০২০ | ২৬ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে পোশাককর্মীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ; গ্রেপ্তার ৬


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:

প্রকাশিত: ০৮:৫১ পিএম, ১৬ এপ্রিল ২০১৯, মঙ্গলবার
চট্টগ্রামে পোশাককর্মীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ; গ্রেপ্তার ৬

 

চট্টগ্রামে এক পোশাককর্মীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ, পরে চুল কেটে দেওয়া ও জলন্ত সিগারেটের ছ্যাকা দেয়ার অভিযোগ নারী-পুরুষসহ ৬ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার রাতভর নগরের বিভিন্নস্থানে অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয় বলে সদরঘাট থানার ওসি নেজাম উদ্দীন জানান।

তারা হলেন- নিজাম উদ্দিন (৩০), তার স্ত্রী তানিয়া বেগম (২৭) ও খালা পপি বেগম (৩০) শ্যালিকা সোনিয়া বেগম (২২) ও তার স্বামী মো. লিটন (২৯) এবং নিজামের নানী ফিরোজা বেগম (৬৫)। তাদের গ্রামের বাড়ি ফেনী জেলায়।

সদরঘাট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রুহুল আমিন বলেন, ভুক্তভোগী নারীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ডবলমুরিং থানাধীন একটি বাসায় জোর করে একাধিকবার ধর্ষণ করেন সিএনজি অটোরিকশা চালক নিজাম উদ্দিন। এরপর গত ৭ এপ্রিল সকালে সদরঘাট থানাধীন পশ্চিম মাদারবাড়ি এলাকার সোনিয়ার বাসায় ওই নারীকে নিয়ে আসেন নিজাম।

‘সেখানে নিজাম ছাড়া বাকি ৫ আসামি ওই নারীকে শারীরিক নির্যাতন করেন, চুলে কেটে দেন ও মুখে জলন্ত সিগারেটের ছ্যাকা লাগান। এসব আবার তারা ভিডিও ধারণ করেও রাখেন। এমনকি সাদা কাগজে সাক্ষরও নিয়ে রাখেন।’

সদরঘাট থানার ওসি নেজাম উদ্দীন বলেন, প্রথমে ধর্ষণ, পরে চুলে কেটে দেওয়া ও আগুনের ছেঁকা দেয়া- খুবই অমানবিক নির্যাতন। নির্যাতনের শিকার নারী কিছুটা সুস্থ হয়ে গতকাল সোমবার থানায় অভিযোগ করতে আসলে বিষয়টি জানাজানি হয়।

তিনি বলেন, অভিযোগের গুরুত্ব বিবেচনায় আমরা দ্রুত পদক্ষেপ নিয়েছি। মামলা রেকর্ড করার পর রাতভর অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূলহোতা নিজাম ও তার ৫ সহযোগিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে চুল কাটার কাচি, ভিডিও ধারণ করা মোবাইল ও সাক্ষর নেয়া সাদা কাগজটি উদ্ধার করা হয়েছে।

অমৃতবাজার/এএস