ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০১৯ | ১০ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি সোর্সকে মারপিট


ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:৫২ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার
ঠাকুরগাঁওয়ে বিজিবি সোর্সকে মারপিট

ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুর উপজেলার বিজিবি সোর্স জিয়াউর রহমানকে বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করার অভিযোগ উঠেছে। সে হরিপুর উপজেলার বহরমপুরে এলাকার জামুন মশালডাঙ্গী গ্রামের রফিক এর ছেলে।

জিয়াউর রহমান অভিযোগ করে বলেন, সে দীর্ঘদিন ধরে বিজিবি সোর্স হিসেবে কাজ করে আসছে এ কারণে এলাকার কিছু প্রভাবশালী চোরাকারবারি তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছিল।

গত ১১ এপ্রিল রাতে কিছু চোরাকারবারি একত্রিত হয়ে তার বাড়িতে হামলা করলে জিয়াউর রহমান ও তার পরিবার প্রাণের ভয়ে বাসা থেকে পালিয়ে যায়।  এ সময় চোরাকারবারিরা তার ঘরে দুটি আলমারি ভেঙে ৮০ হাজার টাকা এবং আনুমানিক ৪ ভরি স্বর্ণালংকার, দামি জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে যায় এবং বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

এ ঘটনায় ১২ এপ্রিল তাদের উপরে হামলা এবং মালামালের লুটপাট এর ব্যাপারে গ্রামের লোকজনের কাছে গিয়ে সাহায্য প্রার্থনা করে এবং গ্রাম্য সালিশে ব্যবস্থা করার জন্য অনুরোধ জানায়। হামলাকারীরা  প্রভাবশালী   চোরাকারবারী হওয়ায় গ্রাম্য সালিশের কোন সম্ভাবনা না দেখে সন্ধ্যায় জিয়াউর রহমানের স্ত্রী হরিপুর থানায় মামলার উদ্দেশ্যে রওনা দেয় পথিমধ্যে একদল দুর্বৃত্ত তাকে বাধা দেয় এবং শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে।

অপরদিকে মোহাম্মদ জিয়াউর রহমানকে বাড়িতে একা পেয়ে চোরাকারবারীরা ব্যাপক মারধর করে মারাত্মকভাবে আহত করে। এর পূর্বে জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে চোরাকারবারীরা মিথ্যা মামলা দায়ের করেছিল উক্ত মামলায় চোরাকারবারীরা আহত অবস্থায় তাকে ধরে নিয়ে হরিপুর থানা পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেন। বর্তমানে জিয়াউর রহমান পুলিশ হেফাজতে ঠাকুরগাঁও  সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।

এ বিষয়ে হরিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আমিরুজ্জামান জানান ঘটনাটি শুনেছি তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাইনি অভিযোগ পেলে মামলা গ্রহণ করব এবং ব্যবস্থা নিব।

অমৃতবাজার/নবীন/আরএইচ