ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাউজানে শ্বাশুড়ী ও স্ত্রীর হাতে জবাই হওয়া ফখরুলের মৃত্যু


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০১:২০ পিএম, ২১ অক্টোবর ২০১৮, রোববার
রাউজানে শ্বাশুড়ী ও স্ত্রীর হাতে জবাই হওয়া ফখরুলের মৃত্যু

 

দুই দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে মারা গেলেন রাউজানের ফখরুল ইসলাম (৩০)। তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী ও শ্বাশুড়ী কর্তৃক জবাই করার অভিযোগ তুলেছেন এলাকাবাসী। শনিবার (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

গত বৃহস্পতিবার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৬টায় উপজেলার পৌরসভার গহিরা জনতা ব্যাংক সংলগ্ন আবু তাহের ভবনের তৃতীয় তলাস্থ তার সাবেক স্ত্রীর ভাড়া বাসার ছাদ থেকে হাত-পা বাঁধা ও গলাকাটা অবস্থায় ফখরুলকে স্থানীয়রা উদ্ধার করেন।

পরে উদ্ধারকারীরা তাকে মুমূর্ষু অবস্থায় প্রথমে গহিরাস্থ জে কে মেমোরিয়াল হাসপাতাল ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। পুলিশ ঘটনাস্থল হতে তার তালাক প্রদত্ত স্ত্রী ও শ্বাশুড়ীকে আটক করেন।

শুক্রবার (১৯ তারিখ) ফখরুলের ছোট ভাই নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে হত্যার চেষ্টায় একটি মামলা দায়ের করেছিলেন। নিহত ঐ যুবক উপজেলার পৌর এলাকার ২ নম্বর ওয়ার্ডের গহিরা মোবারক-খীল গ্রামের শুক্কুর মিস্ত্রি বাড়ির মো. তাজুল ইসলামের পুত্র।

রাউজান থানা পুলিশ ও স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, এক বছর পূর্বে গহিরা ইউনিয়নের দলই নগর গ্রামের আবু বক্কর বাবুলের কন্যা উম্মে হাবিবা মায়ার (১৮) সাথে ফখরুল ইসলাম বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। বিগত ২ মাস পূর্বে তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ ঘটে। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে স্থানীয়রা ওই বাসায় আগুন শিখা ও ধোঁয়া দেখে এগিয়ে আসেন। পরে তারা আগুন নিভাতে সক্ষম হলেও কিছু আসবাবপত্র পুড়ে যায়। এমতাবস্থায় চিৎকার শুনে ছাদে উঠে পা বাঁধা ও গলাকাটা অবস্থায় ফরুলকে দ্রুত উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় একটি হাসপাতাল ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ঘটনায় থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফখরুলের তালাকপ্রাপ্ত স্ত্রী উম্মে হাবিবা (১৮) ও শ্বাশুড়ী রাশেদা আকতার (৪২) কে আটক করেছিলেন।

আহত ফখরুলের মা জাহানারা বেগম বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫ টায় আমার ছেলেকে ফোনে ডেকে নিয়ে যায়। পরে আমার কাছে খবর আসে আমার ছেলেকে জবাই করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে রাউজান থানার সেকেন্ড অফিসার নুর নবী বলেন, শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ফখরুল মারা গেছে।

গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ফখরুলকে তার সাবেক স্ত্রীর ভাড়া বাসার ছাদ থেকে গালাকাটা অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছিল। এই ঘটনায় তার স্ত্রী ও শ্বাশুড়ীকে আটক করা হয়েছিল। ঘটনার পরদিন তার ছোট ভাই বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন।

অমৃতবাজার/দিদারুল/সুজন