ঢাকা, শনিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৮ | ৪ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শ্বশুরবাড়িতে যাওয়ার পথে নববধূকে ছিনিয়ে নিল দুর্বৃত্তরা!


ময়মনসিংহ প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৭:৩৬ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, শুক্রবার
শ্বশুরবাড়িতে যাওয়ার পথে নববধূকে ছিনিয়ে নিল দুর্বৃত্তরা!

ময়মনসিংহের নান্দাইলে বিয়ের ৭ দিন পর ফিরতি নাইওরে নববধূকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে যাওয়ার পথে ইজিবাইক রোধ করে নববধূকে ছিনিয়ে নিল একদল দুর্বৃত্ত। নান্দাইল উপজেলার খারুয়া ইউনিয়নের দেওয়াগঞ্জ-হোসেনপুর সড়কে বৃহস্পতিবার বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটেছে।

স্থানীয় এলাকাবাসি ও বরের লোকজন জানায়, কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর পৌরসভার বাসিন্দা মোঃ আনোয়ার হোসেনের ছেলে রাজন মিয়া (২২) নান্দাইল উপজেলার বেতাগৈর ইউনিয়নের লোহিতপুর গ্রামের মোঃ তফাজ্জল হোসেনের কন্যা লিপা আক্তার (১৮)কে গত ১৪ সেপ্টেম্বর বিয়ে করেন।

এদিকে বর রাজন জানান, বিয়ের দিন কনের বাড়িতে ৫/৬জনের একটি দল প্রবেশ করে হঠাৎ বিয়ের আসরে হামলা চালায়। এতে তাদের পক্ষের ৫ জনকে মারধর করে আহত করে বিয়ের আয়োজন লন্ডভন্ড করে দেয় এবং তাদের বহনকারী দু’টি মাইক্রোবাস ভাঙচুর করে। পরে এলাকাবাসীর সহায়তায় নববধূকে নিয়ে গভীর রাতে বাড়ি ফিরেন তিনি।

বর রাজন আরও জানান, পরে জানা যায়, পাশের গফরগাঁও উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের কালিবাড়িচর গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে রাসেল মিয়ার(২৫) নেতৃত্বে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনার পর গত বুধবার স্থানীয় চেয়ারম্যান সালিশে বসে ঘটনার জন্য রাসেলকে দোষী সাব্যস্ত করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য্য করেন। এতে রাসেল ক্ষিপ্ত হয়ে ওই দিন রাতেই তাকে বিভিন্ন কথাবার্তা বলে শাসায়। এই অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে নববধুকে নিয়ে শ্বশুড়বাড়ি যেতে চাইলে পথে ওই রাসেল তাকে বহনকারী ইজিবাইক আটকিয়ে নববধূকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

নান্দাইলের খারুয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল হাসনাত ভূইয়া মিন্টু এ ব্যাপারে সালিশের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, সালিশে অভিযুক্ত রাসেল হাজির হয়ে নিজের দোষ স্বীকার করলে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা ধরা হয়। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নববধূর সাথে রাসেলের প্রেমের সর্ম্পক ছিল। এই কারনেই রাসেলের সাথে মেয়ে সম্ভবত স্বেচ্ছায় চলে গেছে। তারপরও ঘটনাটি নিয়ে ফের সালিশে বসা হবে।

নান্দাইল থানার ওসি কামরুল ইসলাম মিয়া এ বিষয়ে জানান, এ বিষয়ে বরের পক্ষের অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

অমৃতবাজার/বাবুল/মিঠু