ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বেনাপোলে যুবদল নেতার ওপর ছাত্রলীগের হামলা


অনলাইন ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৫:০২ পিএম, ১৭ আগস্ট ২০১৮, শুক্রবার | আপডেট: ০৮:১৭ এএম, ১৮ আগস্ট ২০১৮, শনিবার
বেনাপোলে যুবদল নেতার ওপর ছাত্রলীগের হামলা

বেনাপোলে ছাত্রলীগ এর হামলায় আহত হয়েছেন শার্শা যুবদল নেতা ইমদাদুল হক ইমদাদ। শুক্রবার বেলা ১১ টার সময় বেনাপোল এর ভবেরবেড় বাসস্টান্ড সংলগ্ন ইমদাদুল হক এর অফিসে এ হামলা চালায়। গুরুতর অবস্থায় তাকে স্থানীয় হাসপাতাল রজনী ক্লিনিকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ইমদাদ এলাকার একজন পরিচিত মুখ। তিনি মাঝেমাঝে ভবেরবেড় বাসস্টান্ড সংলগ্ন তার অফিসে বসেন এবং দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে বৈঠক করেন এই বিষয়টা আমরা সবাই জানি। কিন্তু হঠাৎ আজ (শুক্রবার) দুপুরের আগে শার্শা উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা দ্বীন ইসলাম, আরিফ, রয়েলসহ তাদের একটি দল ইমদাদ এর অফিসে অতর্কিত হামলা চালায়। স্থানীয় জনগণ এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তার অফিস ছেড়ে চলে যায়। পরে হামলার স্বীকার আহত ব্যক্তিদেরকে রজনী ক্লিনিকে নিয়ে যায়।

রজনী ক্লিনিকের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, আহত ইমদাদ মাথায় আঘাত পেয়েছেন এবং তার বামহাত চটে গেছে। এছাড়া তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইমদাদুল হক জানান, তালশারি এলাকায় অফিসে বসে তার দলীয় নেতা কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক করছিলেন। বৈঠকে তার সঙ্গে ছিলেন ছাত্রনেতা আবু জুবায়ের শাওন, লাবু, সোহানুর রহমান শাওনসহ বেশ কিছু ছাত্রদল নেতাকর্মী। তিনি বলেন, বৈঠকের একপর্যায়ে শার্শা উপজেলা ও বেনাপোল পৌর এলাকার চিহ্নিত ২০-২৫ জন সন্ত্রাসীরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। পরে স্থানীরা উদ্ধার করে আমাদের হাসপাতালে নিয়ে যান।

হাসপাতালে উপস্থিত ইমদাদের আত্নীয় স্বজন বলেন, ইমদাদের ওপর এর আগেও আওয়ামী লীগের লোকজন হামলা করেছে। এই হামলা ইমদাদকে রাজনীতি থেকে দূরে রাখার জন্য করা হয়েছে। এ হামলার সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি জানায়।

উল্লেখ্য, ইমদাদুল হক ইমদাদ ছিলেন যশোর জেলা ছাত্রদলের সাবেক অর্থ বিষয়ক সম্পাদক। বর্তমানে তিনি শার্শা উপজেলা যুবদল এর সাথে সম্পৃক্ত আছেন।

অমৃতবাজার/মিঠু