ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাজশাহীতে হঠাৎ করেই রেলের নিয়োগ পরিক্ষা স্থগিত


রাজশাহী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:১৮ পিএম, ২০ জুলাই ২০১৮, শুক্রবার
রাজশাহীতে হঠাৎ করেই রেলের নিয়োগ পরিক্ষা স্থগিত

বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকেট কালেক্টর গ্রেড-২ পদের লিখিত পরিক্ষা হঠাৎ করেই স্থগিত করা হয়েছে। এ ঘটনায় দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা পরিক্ষার্থীরা রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল রেল ভবনের (রাজশাহী) সামনে বিক্ষোভ করছেন।

বিক্ষোভের সময় পুলিশ দিয়ে প্রার্থীদের গ্রেফতারের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পূর্ব ঘোষণা মতে শুক্রবার বিকাল সাড়ে তিনটায় পরিক্ষা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই তা স্থগিত করে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চল।

জানা গেছে, সারাদেশ থেকে হাজার হাজার পরিক্ষাথী রাজশাহীতে এ পরিক্ষা দিতে এসেছিল। তার মধ্যে বরিশাল থেকে ১৪ হাজার, দিনাজপুর থেকে ছয় হাজার এবং নওগাঁ থেকে দুই হাজারসহ দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় ৩০ হাজার পরিক্ষাথী অংশ নিতে এসেছিল। কিন্তু পরিক্ষা শুরু হওয়ার মাত্র আধা ঘন্টা পূর্বে তারা জানতে পরিক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এতে করে ক্ষোভে ফুঁসে উঠেন পরিক্ষার্থীরা।

পরীক্ষার্থীরা জানায়, বাংলাদেশ রেলওয়ের টিকেট কালেক্টর গ্রেড-২ পদের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ছাড়া হয় গত বছরের নভেম্বর মাসে। এরপর পরিক্ষার তারিখ জানানো হয় আরও দুই মাস পর। পরিক্ষার নির্ধারিত দিন ধার্য হয় শুক্রবার (২০ জুলাই)। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে আগত শিক্ষার্থীরা গতকাল রাত থেকেই ভিড় জমায় রাজশাহীর বিভিন্ন হোটেল এবং স্টেশন এলাকায়। দুপুরে এসকল পরিক্ষার্থী তাদের নিজ নিজ কেন্দ্রে গেলে জানতে পারেন তাদের পরিক্ষা কেন্দ্রতে কোন সিট বসানো হয়নি।

এরপর তারা নগরির রেলগেট সংলগ্ন রেল ভবনে এসে দেখেন পরিক্ষা স্থগিতের নোটিশ ঝুলানো আছে। পরে রেলের নিয়োগ পরিক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে বলে পরিক্ষা স্থগিত করা হয়েছে বলে জানানো হয়।

আরও জানা যায়, পরিক্ষার্থীদের পরিবহনের জন্য রাজশাহী রেলেওয়ের পক্ষ থেকে ২২ টি বাস ভাড়া করা হয়। পরবর্তীতে সে বাসগুলোর ভাড়া বাতিল করা হয়। কিন্তু এ বিষয়ে কিছুই জানতে পারেনি পরিক্ষার্থীরা। এ বিষয়ে কথা বলতে গেলে গাড়ি চেপে পেছনের দরজা দিয়ে সটকে যায় রেলওয়ের কর্মকর্তারা।

পটুয়াখালি থেকে নিয়োগ পরিক্ষায় অংশ নিতে আসা শামীম হোসেন বলেন, দীর্ঘ নয়মাস পর আমাদের পরিক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। পরিক্ষা দেয়ার জন্য দেশের দক্ষিণাঞ্চল থেকে উত্তারাঞ্চলে এসেছি। আমাদের এখানে থাকা খাওয়ার কোন ব্যবস্থা নেই। এখন এসে শুনছি এ পরিক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। আমরা তো আর ক্লাস এইটে পড়িনা যে আমাদের পরিক্ষার প্রশ্ন ফাঁস হবে। এই অনিয়মের কোন প্রতিকার কি রেলওয়ে বা সরকার দিতে পারবে?

নবীনগর থেকে আসা আরেক পরিক্ষার্থী রুবেল ইসলাম বলেন, এখানে আসতেও অনেক অর্থ, শ্রম আমাদের দিতে হয়েছে। আমাদের ভিটা বাড়ি বেচে তো নিয়োগ নিতে পারবো না। যাদের ১৫ বা ২০ লাখ টাকা আছে তাদের নিয়োগ দেয়ার জন্য হুট করে সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলওয়ে।

অত:পর নিয়োগ পরিক্ষার্থীদের শান্ত করতে প্রথমে পুলিশ এবং পরে র‌্যাব রাজশাহী রেল ভবনের সামনে এসে উপস্থিত হয়। তাদের কথায় না সরলে সেখানে রাজশাহী রেলওয়ের কর্মকর্তা (সিএসটি) অসিম কুমার তালুকদার সেখানে পৌছে পরিক্ষার্থীদের পুনরায় পরিক্ষা নেওয়া হবে বলে আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। হতাশাগ্রস্থ হয়ে একে একে ফিরে যেতে থাকেন পরিক্ষার্থীরা।

জানতে চাইলে সিএসটি অসিম কুমার তালুকদার বলেন, যেসকল পরিক্ষার্থী পরিক্ষায় অংশ নেওয়ার জন্য এসেছিলেন তাদের পরিক্ষা আগামি এক মাস পর পুনরায় গ্রহন করা হবে। যেকোন প্রয়োজনে পরিক্ষার্থীদের কাছে আমার নম্বর দেয়া হয়েছে। বিস্তারিত ফোনে জানিয়ে দেয়া হবে।

অমৃতবাজার/শিহাবুল/মিঠু