ঢাকা, বুধবার, ১৫ আগস্ট ২০১৮ | ৩১ শ্রাবণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে মুক্তামনি


সাতক্ষীরা সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ০৯:৪৮ এএম, ২৩ মে ২০১৮, বুধবার
সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে মুক্তামনি

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন বিরল রোগ হেমানজিওমায় আক্রান্ত সাতক্ষীরার ১৩ বছরের মেয়ে মুক্তামনি। বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার দক্ষিণ কামারবায়সা গ্রামে বাবা-মায়ের সামনেই মারা যায় শিশুটি। (ইন্না ইলাইহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মুক্তামনির বাবা ইব্রাহিম হোসেন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

২০১৭ সালের জুলাইয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে মুক্তামনির বিরল রোগের খবর প্রকাশের পর টনক নড়ে স্বাস্থ্য বিভাগের। প্রথমে স্বাস্থ্যসচিব তার চিকিৎসার দায়িত্ব নেন। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চিকিৎসার দায়ভার গ্রহণ করেন।

ওই বছরের ১১ জুলাই ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয় মুক্তামনিকে। সেখানে তার চিকিৎসায় গঠন হয় মেডিকেল বোর্ড। পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ধরা পড়ে মুক্তা মনির হাত রক্তনালীর টিউমারে আক্রান্ত। কয়েক দফা অস্ত্রোপচার করে অপসারণ করা হয় তার হাতের অতিরিক্ত মাংস পিণ্ড।

দীর্ঘ ৬ মাস চিকিৎসা সেবার পর ২০১৭ সালের ২২ ডিসেম্বর এক মাসের ছুটিতে বাড়িতে আসে মুক্তামনি। আর বুধবার সবকিছুর মায়া ত্যাগ করে পাড়ি জমায় না ফেরার দেশে।

অমৃবাজার/জয়