ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৯ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

চার লেন হচ্ছে না যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক


যশোর প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৬:২৫ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০১৭, রোববার | আপডেট: ০৬:২৮ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০১৭, রোববার
চার লেন হচ্ছে না যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক

শেষ পর্যন্ত চার লেন হচ্ছে না যশোর বেনাপোল মহাসড়ক। ঐতিহ্যের স্মারক রেইন্ট্রি গাছ রাখতে গিয়ে এ মহাসড়কটি চার লেন করা থেকে সরে এসেছে কর্তৃপক্ষ। এছাড়া ৩৮ কিলোমিটার এই মহাসড়কের মধ্যে ২৮ কিলোমিটার মহাসড়কে মাত্র ৬ ফুট পর্যন্ত বাড়ানো হবে। বাকি ১০ কিলোমিটার অংশই প্রশস্ত করা হবে না।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম।

সড়ক ও জনপথ বিভাগ (সওজ) জানায়, পরিবেশের ভারসাম্যের বিবেচনায় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এ মহাসড়কের ঐতিহ্যবাহী শতবর্ষী প্রাচীন গাছ না কাটার সিদ্ধান্ত নেয়। গাছ রক্ষা করতে গিয়ে তাই পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী মহাসড়কটি সম্প্রসারণ করা হচ্ছে না। এখন ২৪ ফুট প্রশস্ত যশোর-বেনাপোল মহাসড়ক সম্প্রসারণ করা হবে। যাকে দুই লেন বলা হবে। গাছের কারণে তাও আবার ১০ কিলোমিটার সম্প্রসারণও করা হবে না।

সওজের দেয়া তথ্য মতে, গাছ রেখে ৩৮ কিলোমিটার মহাসড়কের ২৮ কিলোমিটারের দু’পাশে ৬ ফুট বাড়ানো যাবে। অর্থাৎ ২৮ কিলোমিটার রাস্তার বর্তমান প্রস্থ ২৪ ফুট থেকে বেড়ে হবে ৩০ ফুট। আর ১০ কিলোমিটার ২৪ ফুটই থাকবে। এতে করে রক্ষা পাবে এ মহাসড়কের দুই পাশের ২ হাজার ৩১২টি রেইন্ট্রি গাছ।

সূত্র মতে, ‘যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় মহাসড়ক’ উন্নীতকরণ প্রকল্পের মাধ্যমে ৩২৮ কোটি টাকা ব্যয়ে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের দুই লেনের প্রশস্ততা বাড়ানো হবে। ইতোমধ্যে কাজ শুরুর জন্য ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে মহাসড়ক সম্প্রসারণ কাজের দরপত্র আহ্বান করা হবে।

এ ব্যাপারে সড়ক ও জনপথ যশোর সার্কেল-১ এর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী আলী নূরায়েন বলেছেন, প্রাচীন গাছগুলো বাঁচিয়ে রেখেই এ সড়কের বিভিন্ন অংশের প্রশস্ততা বাড়ানো হচ্ছে। দড়াটানা থেকে চেকপোস্ট পর্যন্ত খুব বেশি গাছ নেই। এদিকে মালঞ্চী পর্যন্ত গাছের সারি রাস্তা থেকে বেশ দূরে। এছাড়া সড়কটির শেষ দিকে বেনাপোল স্থলবন্দর পর্যন্ত এখনই চার লেন রয়েছে। কারণ সড়কটির শহর অংশে গাছের পরিমাণ অনেক কম। তাই গাছ রেখে সড়কের ২৮ কিলোমিটার সম্প্রসারণ করা যাচ্ছে। তবে এ মহাসড়কের অনেক জায়গায় পিচের আস্তরণ যেখানে শেষ হয়েছে তার ঠিক পাশেই বড় বড় গাছের সারি রয়েছে। সেখানে সড়ক সম্প্রসারণের সুযোগ নেই। মহাসড়কের বিভিন্ন অংশের এ রকম ১০ কিলোমিটারের প্রস্থ আগের মতো রেখেই পুনঃনির্মাণ করা হবে।

যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহাঙ্গীর আলম জানান, যশোর-বেনাপোল মহাসড়কটি আপাতত চার লেন হচ্ছে না। এখন মহাসড়কটির দুই লেন প্রশস্তকরণ কাজ শুরু হবে।

অমৃতবাজার/প্রণব/রেজওয়ান

Loading...