ঢাকা, বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭ | ৪ আশ্বিন ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীতে সড়কের অনুমোদন হওয়ায় আনন্দ মিছিল


নরসিংদী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৫:২৮ পিএম, ১৩ জুলাই ২০১৭, বৃহস্পতিবার
নরসিংদীতে সড়কের অনুমোদন হওয়ায় আনন্দ মিছিল

জাতীয় অর্থনৈতিক নির্বাহী পরিষদ একনেকে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার অর্থনৈতিক অঞ্চলের পাঁচদোনা-ডাঙ্গা-ঘোড়াশাল সড়ক উন্নয়ন ও ইসলামপুর খেয়াঘাট প্রকল্প অনুমোদন হওয়ায় পলাশ উপজেলার ডাঙ্গাতে আনন্দ মিছিল ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়েছে।বৃহস্পতিবার মিষ্টি বিতরণ করে উল্লাস প্রকাশ করে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীসহ এলাকাবাসী।

মঙ্গলবার একনেকে অনুমোদন হওয়া এই সড়ক উন্নয়নের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৬৫ কোটি ৪৫ লাখ টাকা। গণমাধ্যমে এ খবর ছড়িয়ে পড়লে আনন্দ উল্লাসে মেতে উঠেন এলাকাবাসী। পলাশ উপজেলার আমদিয়া ও ডাঙ্গা ইউনিয়নজুড়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা এলাকাবাসীর মধ্যে মিষ্টি বিতরণ করেন। তারা দীর্ঘদিন পর হলেও অবহেলিত এই সড়কটির উন্নয়নের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, স্থানীয় সাংসদ কামরুল আশরাফ খান পোটন ও সড়ক বিভাগকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এলাকাবাসী।

নরসিংদী সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের তথ্যমতে, পাঁচদোনা-ডাঙ্গা-ঘোড়াশাল (ইসলামপুর খেয়াঘাটসহ) সড়কটির দৈর্ঘ্য ২১ কিলোমিটার। সরকার ঘোষিত বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে সংযুক্ত থাকায় সড়ক বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক এটি। প্রতিদিন এলাকাবাসীর যাতায়াতসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানের হাজারো মালবাহি গাড়ি চলাচল করে এই সড়কে। সড়কজুড়ে বড় বড় গর্ত ও খানাখন্দের সৃষ্টি হওয়ায় দীর্ঘদিন ধরে চলাচলের অনুপযোগী গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কটি। ঝুঁকি নিয়ে যানবাহন চলাচল করায় প্রতিনিয়তই ঘটছে দুর্ঘটনা। চলতি বর্ষা মৌসুমে সড়কটির অবস্থা হয়ে পড়েছে আরও নাজুক।

নরসিংদী সড়ক জনপথ অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. মনিরুজ্জামান বলেন, এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের স্বপ্নের সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পটি (চার লেন) একনেকে অনুমোদন হওয়ায় বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে। এতে বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলের সঙ্গে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের সংযোগ স্থাপনসহ ঢাকা-গাজীপুরের দুরত্ব হ্রাস পাবে।

নরসিংদীর ২ (পলাশ) আসনের সাংসদ কামরুল আশরাফ খান পোটন বলেন, শিল্প এলাকাসহ এতদাঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল এই সড়ক। অবশেষে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার এটি বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে। সড়কটি বাস্তবায়ন হলে এলাকার অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড ব্যাপকভাবে বৃদ্ধি পাবে এবং কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

অমৃতবাজার/জাহিদ/ইকরামুল  
 


Loading...