ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮ | ৬ ভাদ্র ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হজ এজেন্সিতে দুদকের অভিযান


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৭:০৪ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৮, বৃহস্পতিবার
হজ এজেন্সিতে দুদকের অভিযান

দুর্নীতি ও মানবপাচার বন্ধের লক্ষ্যে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) বৃহস্পতিবার রাজধানীর পৃথক পৃথক হজ এজেন্সিতে অভিযান চালিয়েছে। এ নিয়ে কমিশন চলতি মাসে রাজধানীর বিভিন্ন এজেন্সিতে ৫ম দফা অভিযান চালায়।

দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (১০৬) হজ্বযাত্রীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার উপ পরিচালক শেখ মো. ফানাফিল্যা এবং সহকারী পরিচালক গুলশান আনোয়ার প্রধানের সমন্বয়ে পুলিশসহ নয় সদস্যের একটি শক্তিশালী টিম রাজধানীর নয়াপল্টন হজ এজেন্সিগুলোতে এ অভিযান চালায়। অভিযানকালে দুদক টিমের সদস্যরা হজ্ব এজেন্সিগুলোতে বিভিন্ন অনিয়ম দেখতে পেয়েছেন বলে দুদকের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

নয়াপল্টন কাজী টাওয়ারে ‘কাজী এয়ার ইন্টারন্যাশনাল’ হজ এজেন্সির কাছে প্রকৃত হাজির সংখ্যার সমর্থনে কোন কাগজপত্র নেই বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়। নিবন্ধনকৃত প্রত্যেক হজ এজেন্সির কমপক্ষে ১৫০ জন যাত্রী প্রেরণের বাধ্যবাধকতা থাকলেও উল্লিখিত হজ এজেন্সি মাত্র ৭৫ হজ হাজীকে প্রেরণ করেছে বলে জানা যায়। এছাড়াও সৌদি আরবে হজযাত্রীদের বাড়ি ভাড়া, মুয়াল্লাম ফি ও অন্যান্য রশিদপত্র পাওয়া যায়নি।

দুদক টিম একই টাওয়ারে অবস্থিত ‘কাজী ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস’ গতবছরের অডিটে ৪ লক্ষাধিক টাকার কর ফাঁকি দিয়েছে বলে তথ্য পেয়েছে। এই টিমের পূর্ণাঙ্গ প্রতিবেদন পাওয়ার পর এ জাতীয় অনিয়ম প্রতিরোধকল্পে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানায় কমিশন। এ সময় দুদকের পক্ষ থেকে উপস্থিত হজযাত্রীসহ সকলের কাছে দুর্নীতি বিরোধী লিফলেট ও দুদক হটলাইন (১০৬) এর স্টিকার বিতরণ করা হয়।

এর আগে চলতি মাসে রাজধানীর বিভিন্ন হজ এজেন্সিতে চারবার অভিযান চালায় দুদক। হজকেন্দ্রীক দুর্নীতির সিন্ডিকেট ভেঙে দেয়া এবং অব্যাহত অভিযানের মাধ্যমে হজযাত্রীদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতন করে তোলাই কমিশনের লক্ষ্য বলে জানান এনফোর্সমেন্ট টিমের সমন্বয়কারী দুদকের মহাপরিচালক (প্রশাসন) মোহাম্মাদ মুনীর চৌধুরী।

অমৃতবাজার/শাওন