ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর ২০১৭ | ৭ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

রাজধানীতে শিশু অধিকার সপ্তাহের অনুষ্ঠানমালা শুরু


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৪:০৫ পিএম, ১১ অক্টোবর ২০১৭, বুধবার
রাজধানীতে শিশু অধিকার সপ্তাহের অনুষ্ঠানমালা শুরু

সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশু সমাবেশ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের মধ্যদিয়ে রাজধানীতে আজ ‘শিশু অধিকার সপ্তাহ ২০১৭’ শুরু হয়েছে। এই সপ্তাহের এবারের শ্লোগান হচ্ছে ‘শিশু পেলে অধিকার, খুলবে নতুন বিশ্বদ্বার।’

শিশু সমাবেশের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির ভাষণে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি বলেন, সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুদের শিক্ষা, সংস্কৃতিসসহ নানা বিষয়ে মেধা বিকাশের জন্য বর্তমান সরকার খুবই আন্তরিক। এই কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্যই এই সপ্তাহের অনুষ্ঠানমালা শুরু হলো।

তিনি বলেন, সকল শিশুকে বর্তমান সরকার সাংস্কৃতিক, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পুষ্টিসহ জাগতিক জীবনের সবক্ষেত্রে মেধাবী করে তোলার জন্য কাজ করছে। শিশুদের সমসুযোগ ও সমঅধিকার নিশ্চিত করার মধ্যদিয়ে জাতির সুন্দর ভবিষ্যত গড়ে তোলাই এক কার্যক্রমর মূল লক্ষ্য।

বাংলাদেশ শিশু একাডেমি এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘পথশিশু পুনর্বাসন প্রকল্পের’ যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত আজ সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জগন্নাথ হলের মাঠে অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগম এনডিসি। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান কথাশিল্পী সেলিনা হোসেন, জগন্নাথ হলের প্রভোস্ট প্রফেসর অসীম সরকার, নায়ক ফেরদৌস আহমেদ, শিশু একাডেমির পরিচালক আনজির লিটন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ‘শিশু পুনর্বাসন প্রকল্পের পরিচালক ড. আবুল হোসেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে পথশিশুদের অংশগ্রহণে আনন্দ অনুষ্ঠান, বিভিন্ন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ছিল উপস্থিত বক্তৃতা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে গান, নৃত্যানুষ্ঠান। সুবিধাবঞ্চিত ও পথশিশুরা এ সব পরিবেশনায় দর্শকদের মুগ্ধ করে। পরে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। এই কার্যক্রম একই সাথে দেশের সকল জেলায় শিশু একাডেমির শাখাগুলোতে শুরু হয়েছে।

সেলিনা হোসেন বলেন, আজকের শিশুরাই আগামীদিনের পরিণত মানুষ। শিল্প-সাহিত্য, সংস্কৃতি, রাজনীতি-বিজ্ঞান সব ক্ষেত্রে আগামী বিশ্বকে নেতৃত্ব দেবে আজকের শিশুরাই। বাংলাদেশে সরকারও শিশু-বান্ধব সাংস্কৃতিক, সামাজিক ও বিজ্ঞানমনস্ক নানা কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে। এই কর্মসূচিতে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদেরও সম্পৃক্ত করা হয়েছে, যা সময়োপযোগী।

অমৃতবাজার/অনির্বান

Loading...