ঢাকা, রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

অভিযোগ অনেক, অব্যাহতি নিলেন কুবির সেই শিক্ষক


কুবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৬:৪৭ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার
অভিযোগ অনেক, অব্যাহতি নিলেন কুবির সেই শিক্ষক ছবি-অমৃতবাজার ।

নানামুখী অভিযোগ ও তোপের মুখে বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব থেকে নিজেই অব্যাহতি নিয়েছেন কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. আলী রেজওয়ান তালুকদার। গতকাল মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের।

সন্ধ্যাকালীন কোর্সের এক শিক্ষার্থীকে যৌন নিপীড়ন ও প্রমাণ লোপাট, বিভাগের শিক্ষকদের নিয়ে বাজে মন্তব্য, বিভাগীয় একাডেমিক কমিটির সিদ্ধান্তের বিপরীত কার্যক্রম ইত্যাদি অভিযোগ রয়েছে শিক্ষক রেজওয়ানের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে যৌন নিপীড়নের অভিযোগটি বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌন নিপীড়ন প্রতিরোধ সেলের অধীনে তদন্তাধীন রয়েছে।

এসবের তোপে পড়ে গত রবিবার ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন তিনি। তারই প্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাকে পদ থেকে অব্যাহতি দিয়ে বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বনানী বিশ্বাসকে বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব দেয়।

জানা যায়, গত ১৫ জানুয়ারি ইংরেজি বিভাগের সন্ধ্যাকালীন কোর্সের এক শিক্ষার্থী ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান মো. আলী রেজওয়ান তালুকদারের বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযুক্ত শিক্ষক এ বিষয়টিকে বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত দাবি করে ঐ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে বাজে মন্তব্য করেন এবং ইংরেজি বিভাগের দুই শিক্ষককে এর মদদ দাতার অভিযোগ তুলে কুমিল্লা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন।

পরবর্তীতে অভিযুক্ত শিক্ষকের বক্তব্যের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ ও শাস্তির দাবি জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর ভিন্ন ভিন্ন আবেদন করে দুই শিক্ষক এবং ঐ শিক্ষার্থী। অভিযুক্ত শিক্ষককে বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ধ্যাকালীন কোর্স থেকে অব্যাহতি দিয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এছাড়াও গত ৬ ফেব্রুয়ারি সহকর্মী শিক্ষকদের নিয়ে বাজে মন্তব্য এবং তাদের সাথে অসদাচরণসহ একাডেমিক বিভিন্ন সিদ্ধান্তে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ এনে লিখিতভাবে তার ১০ সহকর্মী তার প্রতি অনাস্থা জ্ঞাপন করেন। একইসাথে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রার বরাবর একটি লিখিত আবেদন করেন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ।

ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতি নেয়ার কারণ জানতে চাইলে মো. আলী রেজওয়ান তালুকদার বলেন, `ব্যক্তিগত সমস্যার কারণে আমি অব্যাহতি নিয়েছি`।

বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) প্রফেসর ড. মো. আবু তাহের বলেন, `ইংরেজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান আলী রেজওয়ান তালুকদারকে বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতি চাওয়ার আবেদন প্রেক্ষিতে তাকে পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. বনানী বিশ্বাসকে বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।`

অমৃতবাজার/এসএস