ঢাকা, বুধবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ৩ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শিক্ষা ও গবেষণাখাত উপেক্ষিত রেখেই কুবির বাজেট ঘোষণা!


কুবি প্রতিনিধি:

প্রকাশিত: ১১:০২ পিএম, ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার
শিক্ষা ও গবেষণাখাত উপেক্ষিত রেখেই কুবির বাজেট ঘোষণা!

 

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট পাশ করা হয়েছে। এই অর্থবছরে বরাদ্দকৃত অর্থের পরিমাণ ৪২ কোটি ১৭ লাখ টাকা। অন্যান্য খাতগুলোতে চাহিদার সামঞ্জস্য রাখা হলেও প্রতিবারের মত এবারো বাজেটে উপেক্ষা করা হয়েছে শিক্ষা ও গবেষণা খাতকে। শিক্ষার মানোন্নয়নে বাজেটের মাত্র ০.৩৮ শতাংশ এবং গবেষণা খাতে ২.৩৮ শতাংশ হিসেবে ব্যয়ের হিসেবে ধরা হয়েছে।

সোমবার (২৪ জুন) সকাল ১১টায় উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরীর সভাপতিত্বে ৭৩তম সিন্ডিকেট সভায় এই বাজেট পাশ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমদাদুল হক স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য প্রকাশ করা হয়।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বহিঃ সিন্ডিকেট সদস্য- চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান ও মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ড, কুমিল্লার চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. আবদুস ছালাম এবং অভ্যন্তরীন সিন্ডিকেট সদস্যগণ।

এতে বাজেট উপস্থাপন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ ও হিসাব বিভাগের পরিচালক কামাল উদ্দিন ভূঁইয়া। এর আগে গত ১৯ জুন বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থ কমিটির (এফসি) সভায় প্রস্তাবিত বাজেটের অনুমোদন দেয়া হয়।

জানা যায়, শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বাবদ ব্যয় হবে মূল বাজেটের ৬৩.৬ শতাংশ। এছাড়া পণ্য ও সেবা বাবদ ব্যয় ধরা হয়েছে ২৬.৭৫ শতাংশ অর্থ। তবে বরাবরের মত এবারো নাজুক শিক্ষা ও গবেষণা খাত। শিক্ষার মানোন্নয়নে আইকিউএসি খাতে ১৬ লাখ টাকা যা বাজেটের মাত্র ০.৩৮ শতাংশ এবং গবেষণা খাতে ১ কোটি টাকা যা বাজেটের ২.৩৮ শতাংশ হিসেবে ব্যয়ের হিসেবে ধরা হয়েছে। 

বাজেটে আয়ের উৎস বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) অনুদান ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব আয়। এর মধ্যে প্রারম্ভিক স্থিতি ১০ লক্ষ টাকা ও ইউজিসি থেকে দেওয়া হবে ৩৪ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের নিজস্ব তহবিল থেকে যোগান দেয়া হবে ৭ কোটি টাকা। ঘাটতি বাজেট থাকবে ৫৩ লাখ টাকা যা পরবর্তীতে সংশোধিত বাজেটে ইউজিসির কাছে চাওয়া হবে।

সর্বশেষ বাজেটে অর্থাৎ ২০১৮-১৯ অর্থবছরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেট (সংশোধিত) ছিল ৩৯ কোটি ৮০ লাখ টাকা। এতে গবেষণা খাতে মাত্র ১.৩%, লাইব্রেরী খাতে ১.০১% এবং ল্যাবরেটরী উন্নয়ন খাতে ২.৩৫% বরাদ্ধ রাখা হয়েছিল। এর আগে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বাজেটের (সংশোধিত) পরিমাণ ছিল প্রায় ৩৩ কোটি ৯৭ লাখ টাকা।

অমৃতবাজার/কিশোর/এএস