ঢাকা, বুধবার, ২১ আগস্ট ২০১৯ | ৫ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ইবিতে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা


অনি আতিকুর রহমান, ইবি

প্রকাশিত: ১২:৫৫ এএম, ১২ মে ২০১৯, রোববার | আপডেট: ০১:০০ এএম, ১২ মে ২০১৯, রোববার
ইবিতে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা ইবির বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য দিচ্ছেন উপাচার্য ড. রাশিদ আসকারী

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) সরকারী কর্মব্যবস্থাপনা পদ্ধতির আওতায় বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি সংক্রান্ত এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার প্রশাসন ভবনের সভাকক্ষে এটি অনুষ্ঠিত হয়।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. শাহিনুর রহমানের সভাপতিত্বে এ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক ড. রাশিদ আসকারী। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. সেলিম তোহা। রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. রাশিদ আসকারী বলেন, আমাদের দক্ষ শিক্ষক-শিক্ষার্থী রয়েছেন। এর মাঝে সুন্দর ব্যবস্থাপনা রুপরেখা দরকার। বিভাগ, হল, দপ্তরগুলো এক বছরে কী কী করবে তা উল্লেখ করে আমাদের সঙ্গে চুক্তি করবে এবং বছরশেষে সেগুলোর মূল্যায়ন হবে। আমাদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি বলেন, দেশের লক্ষ্য রুপকল্প-২০২১ আর আমাদের লক্ষ্য ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিকীকরণ। ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের মতোই একটি মডেল বিশ্ববিদ্যালয় হবে, অন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো হবে না Ñ এমন আত্মবিশ্বাস নিয়ে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। শিক্ষার্থীদের প্রেজেন্টেশন স্কিল বৃদ্ধির উপরে ভাইস চ্যান্সেলর গুরুত্বারোপ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে ড. শাহিনুর রহমান বলেন, আমরা যে যে জায়গায় আছি সে জায়গায় কাজটা ঠিকমতো করার কমিটমেন্ট আমাদের থাকতে হবে। স্ব-স্ব অবস্থানে আমরা যদি দায়িত্বশীল থাকি তাহলে কোন ক্ষেত্রেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আর পিছিয়ে থাকবে না।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. সেলিম তোহা বলেন, রাষ্ট্র আমাদেরকে অর্থ দিচ্ছে কিন্তু বিনিময়ে আমরা কী দিচ্ছি সে বিষয়ে নিজেকে পরীক্ষায় নেবার সুযোগ আমাদের এসেছে। তিনি আরও বলেন, মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রায়ই বলে থাকেন, লীডারশীপ এবং টীমওয়ার্ক-এর সুন্দর সমন্বয়েই কেবল সফলতা সম্ভব। আমরা সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি।

পরে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোঃ সরওয়ার মুর্শেদ, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. অরবিন্দ সাহা, লোক প্রশাসন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. জুলফিকার হোসেন, হিসাব বিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুস শাহীদ মিয়া, এবং বিশ্ববিদ্যালয় ইন্সটিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’র পরিচালক অধ্যাপক ড. কে এম আব্দুস ছোবহান, মার্কেটিং বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক ড. জাকারিয়া রহমান প্রমুখ।

সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিনবৃন্দ, সভাপতিবৃন্দ, হল প্রভোস্টবৃন্দ এবং অফিস প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। উপ রেজিস্ট্রার (প্রশাসন) ও এপিএ ফোকাল পয়েন্ট মোঃ নওয়াব আলী খান চুক্তি সংক্রান্ত নির্দেশনা উপস্থাপন এবং সভাটি সঞ্চালনা করেন।