ঢাকা, সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯ | ৭ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শ্রেণিকক্ষ সংকট: কুবিতে গাছতলায় পাঠদান


মাহফুজ কিশোর, কুবি

প্রকাশিত: ১১:১৯ পিএম, ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, মঙ্গলবার
শ্রেণিকক্ষ সংকট: কুবিতে গাছতলায় পাঠদান

শ্রেণিকক্ষ সংকট, তবুও থেমে ছিলো না কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের পাঠদান। মঙ্গলবার নির্ধারিত শ্রেণিকক্ষ খালি না পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈশাখী চত্বরে খোলা আকাশের নিচে গাছতলায় বিভাগের চতুর্থ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নিয়ে ক্লাস নেন কোর্স শিক্ষক মাহমুদুল হাসান রাহাত।

জানা যায়, মঙ্গলবার দুপুর ২.১৫ মিনিটে একই সময়ে রুটিন অনুযায়ী বিভাগের দ্বিতীয় এবং চতুর্থ ব্যাচের ক্লাস হওয়ার কথা। কিন্তু ওই সময়ে দ্বিতীয় ব্যাচের বিভাগের শ্রেণিকক্ষে ক্লাস চালু থাকায় চতুর্থ ব্যাচের শিক্ষক মাহমুদুল হাসান রাহাত অন্য কোনও বিভাগেরও ক্লাসরুম ফাঁকা না পেয়ে খোলা আকাশের নিচে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নেন।

এ প্রসঙ্গে শিক্ষক মাহমুদুল হাসান রাহাত বলেন, ‘আমার শিডিউল ক্লাস ছিল কিন্তু কোন ক্লাসরুমই ফাঁকা পাইনি। শিক্ষক হিসেবে তো আর দায়িত্ব এড়াতে পারি না। তাই খোলা আকাশের নিচেই ক্লাস নিয়েছি।’

২০১৬ সালে বিভাগটি চালু হবার পর থেকে এখন পর্যন্ত মোট চারটি ব্যাচের শিক্ষা কার্যক্রম চালু আছে। যাদের সব ব্যাচকেই নির্ভর করতে হয় একটিমাত্র শ্রেণিকক্ষ এবং অন্য বিভাগের ফাঁকা ক্লাসরুমের উপর। আবার অন্য বিভাগের ক্লাসরুম ফাঁকা থাকলেও যদি ক্লাসের মাঝে ঐ বিভাগের ক্লাসের সময় হয় তবে মাঝপথেই বেরিয়ে যেতে হয় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের।

শুধু শ্রেণিকক্ষ সংকটই নয় বিভাগটিতে রয়েছে শিক্ষকদের বসার জায়গার অভাব।মোট সাতজন শিক্ষককে বসতে হয় দুইটি কক্ষে। বিভাগীয় প্রধানের জন্য নেই আলাদা কোনো কক্ষ। নেই শিক্ষার্থীদের জন্য কোনো সেমিনারও।

এ প্রসঙ্গে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রধান বেলাল হুসাইন বলেন, ‘বিভাগ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই আমাদের এই শ্রেণিকক্ষ সংকট চলছে। তবুও বিভাগে কোনোদিন ক্লাস বন্ধ থাকেনি। প্রকৌশল অনুষদের নির্মাণকাজ চলছে। সেটির নির্মাণকাজ সম্পন্ন হলে বাণিজ্য অনুষদের ভবনে বর্তমানে সিইসি বিভাগ যেখানে আছে সেখানে আমাদের বিভাগ স্থানান্তর হবে। তখন শ্রেণিকক্ষ সংকট এবং শিক্ষকদের বসার জায়গার সংকট লাঘব হবে।’

অমৃতবাজার/রেজওয়ান