ঢাকা, শুক্রবার, ২৭ এপ্রিল ২০১৮ | ১৪ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হাবিপ্রবিতে সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে ছুরিকাঘাত


হাবিপ্রবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ০৭:৪৬ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার | আপডেট: ০৭:৪৬ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার
হাবিপ্রবিতে সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে ছুরিকাঘাত

বসন্ত বরণ অনুষ্ঠানে এক জুনিয়র কর্মীর অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনের জেড় ধরে দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) অর্ক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সদস্যদের মধ্যে ছুরিকাঘাত। গতকাল সোমবার (১৯ মার্চ) সন্ধ্যায় ইসিই বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী ফারহানকে বিবিএর ৪র্থ বর্ষে শিক্ষার্থী রাতুল ছুরিকাঘাত করে। এতে তার পা ও কোমরের নিচে কাটা যায়।

আঘাত প্রাপ্ত শিক্ষার্থী ফারহান অভিযোগ করে, বিশ্ববিদ্যালয়ের জিমনেশিয়ামের পাশে বিবিএর ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী রাতুল ও কয়েকজন মিলে আমার উপর অতর্কিত হামলা চালায় এবং ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এতে আমার পা এবং কোমরের নিচে কেটে যায়।

অন্যদিকে রাতুল জানান যে, গত (১৫ ফেব্রুয়ারি) ফারহান, সোহান, জাহিদ আরও কয়েকজন মিলে আমাকে আঘাত করে আমার নাক মুখ ফাটিয়ে দেয়। গতকাল আমি তার সঙ্গে কথা বলার জন্য ডাক দিলে সে প্রথমে আঘাত করে। পরবর্তীতে হাতাহাতির একপর্যায়ে আমি কলম ও চাবি দিয়ে আঘাত করি।

অর্ক সাংস্কৃতিক সংগঠনের জোট থেকে জানান, যে গত (১৫ ফেব্রুয়ারি) মারামারি পর থেকে উভয়কে সংগঠন থেকে বহিস্কার করা হয়। তাই ওদের কোন দায় ফার সংগঠন নিবে না। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক প্রফেসর ড.মো. তারিকুল ইসলাম জানান, আমরা এ বিষয়ে উভয়ের কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।

এনিয়ে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসন ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি ঘটন করে। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. খালেদ হোসেন, ডি-২ হল সুপার প্রফেসর ডা. ফজলুল হক ছাত্র পরামর্শ বিভাগের পরিচালক ড. মো. তারিকুল ইসলাম এবং শেখ রাসেল হলের সুপার ড. ইমরান পারভেজ। আগামী সাত দিনের মধ্যে তদন্ত কমিটি প্রতিবেদন রিপোর্ট প্রকাশ করবে এবং পরে সে অনুযায়ী দোষীদের ব্যপারে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

অমৃতবাজার/রউফ/ইকরামুল