ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭ | ৫ কার্তিক ১৪২৪ বঙ্গাব্দ

বিদ্যালয়ে শিক্ষকের দাবিতে ছাত্রীদের সড়ক অবরোধ


রাজশাহী সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ০৭:৫৮ পিএম, ১২ অক্টোবর ২০১৭, বৃহস্পতিবার
বিদ্যালয়ে শিক্ষকের দাবিতে ছাত্রীদের সড়ক অবরোধ

ঘড়ির কাটায় ঠিক সময় তখন ১১টা। হঠ্যৎ স্কুল থেকে বেরিয়ে সড়কে নেমে এলো রাজশাহী মোহনপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা। হাতে কাগজ ফেস্টুন নিয়ে ১১টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত তারা রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কে অবস্থান নেয়।

পরে জানা গেল এভাবে তারা বিদ্যালয়ে শিক্ষকের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করেছে। তাদের দাবি, বিদ্যালয়টিতে নতুন শিক্ষকের পদ সৃষ্টি ও শূন্য পদে শিক্ষকের দাবি। তাদের ফেস্টুনে লেখা, আমাদের দাবি মানতে হবে, শিক্ষক নিয়োগ দিতে হবে।

স্কুলটির নবম শ্রেণির ছাত্রী রাজিয়া খাতুন, জেবা খাতুন ও স্বম্পা খাতুন জানান, তাদের স্কুল সরকারি হলেও শিক্ষকের পদ মাত্র ছয় জন। এর মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই গণিত শিক্ষকের পদ শূন্য। কিছুদিন আগে পর্যন্ত স্কুলে পাঁচজন শিক্ষক ছিল। কিন্তু ১৭ আগস্ট ইংরেজি শিক্ষক কলিম উদ্দিন প্রাং মোহনপুর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ে বদলি হয়ে অন্যত্র চলে গেছেন। এখন শিক্ষকের অভাবে ক্লাস বন্ধ হতে চলেছে।

নবম শ্রেণির ছাত্রীরা আরো জানান, এখন তাদের স্কুলে ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞানের শিক্ষক নেই।

সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী আয়েশা খাতুন, সানজিদা খাতুন ও শোভা খাতুন জানান, বর্তমানে চার জন শিক্ষক নিয়ে জোড়াতালি দিয়ে কোন মতে চলছে। কিছুদিন থেকে ক্লাস বন্ধ হওয়ার কারণে আমরা মহাসড়ক অবরোধ করতে বাধ্য হয়েছি।

এর আগে গত ২০ আগস্ট ওই স্কুলের শিক্ষার্থীরা শিক্ষকের দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করেছিল। সে সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) শুক্লা সরকার এক সপ্তার মধ্যে দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে তারা অবরোধ তুলে নেয়। কিন্তু তিন সপ্তাহ পার হলেও তাদের দাবি পূরণ না হওয়ায় তারা আবারো আন্দোলন করছে।

শিক্ষাথীদের এ অবরোধে ফলে দূর পাল্লাসহ অসংখ্য যানবাহন আটকে যায় মুহূর্তের মধ্যে। সৃষ্টি হয় দীর্ঘ যানজট। পরে তারা উপজেলা স্মৃতিসৌধের সামনে ইংরেজি, গণিত, বিজ্ঞানসহ শিক্ষক নিয়োগের দাবিতে বিক্ষোভ করতে থাকে।

শিক্ষার্থীদের শান্ত করতে ছুটে যান উপজেলা প্রশাসনে পক্ষে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুস সামাদ, ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ, বানেছা বেগম, অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) এসএম মাসুদ পারভেজ, ওসি তদন্ত আফজাল হোসেনসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ শিক্ষার্থীদের বুঝিয়ে অবরোধ তুলে নেয়ার চেষ্টা করেন। উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে আগামী সোমবার পর্যন্ত সময় চেয়ে দাবি পূরণের আশ্বাস দিলে তারা অবেরোধ তুলে নেয়।

জানতে চাইলে মোহনপুর সরকারি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল আজিজ বলেন, স্কুলে ৩০৯ জন শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত আছে। কিন্তু এখন শিক্ষক মাত্র চার জন। শিক্ষকের অভাবে সব শ্রেণির ক্লাস করানো সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিষয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুস সামাদ বলেন, আগামী রোববার জেলা সমন্বয় সভায় বিষয়টি আলোচনা করে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা হবে।

অমৃতবাজার/শিহাবুল/রেজওয়ান

Loading...