ঢাকা, সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

চীন থেকে আনা রসুন পাচার হচ্ছে ভারতে


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:৫০ পিএম, ১৩ অক্টোবর ২০১৯, রোববার
চীন থেকে আনা রসুন পাচার হচ্ছে ভারতে

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য ও আশপাশের এলাকায় রসুনের দাম তুলনামূলক বেশি। আর তাই চীন থেকে বাংলাদেশে আনা রসুন চোরাইপথে পাচার হচ্ছে অধিক মুনাফার লোভে।


রাতের আঁধারে ট্রাক ভরে রসুন পৌঁছাচ্ছে চোরাকারবারীদের আস্তানায়। সেখান থেকে পাচার করা হচ্ছে ভারতে।

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার সীমান্ত এলাকা দিয়ে পাচারকালে এমন একটি রসুনের চালান আটক করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)।

সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শনিবার রাত ১০টার দিকে চুনারুঘাট উপজেলার মানিকভাণ্ডার গ্রামে বিজিবি গুইবিল সীমান্ত ফাঁড়ির নায়েক সুবেদার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে একটি টিম অভিযান পরিচালনা করে। সেখানে সুলতানের বাড়ির পাশ থেকে জব্দ করা হয় ২৪ বস্তায় থাকা ১ হাজার ২০০ কেজি রসুন।

সূত্র জানায়, রসুনের চালানের মালিক চুনারুঘাট উপজেলার আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার কালামণ্ডল গ্রামের বাসিন্দা আইয়ূব আলী। তিনি একটি পিকআপ দিয়ে ১৪ বস্তা রসুন নিয়ে পাচারের জন্য মানিকভাণ্ডার গ্রামে রাখেন। বিজিবি এ তথ্য জেনে অভিযান চালায়।

জানা গেছে, মানিকভাণ্ডার গ্রাম থেকে রসুনের চালান যায় ভারত সীমান্তের কাঁটাতারের বেড়ার নিচ দিয়ে। মূলত ত্রিপুরা রাজ্যের খোয়াই জেলার বেলচর নামক স্থানে এ সব মাল জমা হয়।

সংশ্লিষ্টরা জানায়, পাচারকারীরা চীন থেকে আমদানি করা রসুন কিনে থাকে ১১৫ টাকা কেজি হিসেবে। আর ভারতের চোরাকারবারীদের কাছে তা বিক্রি করা হয় ১৫০ টাকা কেজি দরে। ত্রিপুরার স্থানীয় বাজারে রসুনের মূল্য ১৮০ থেকে ১৯০ টাকা কেজি।

২৪ বস্তা রসুন আটকের সত্যতা নিশ্চিত করে বিজিবি গুইবিল সীমান্তের নায়েক সুবেদার হাবিবুর রহমান জানান, এ বিষয়ে বিজিবি ৫৫ ব্যাটালিয়নের মিডিয়া উইং থেকে বিস্তারিত জানানো হবে।

অমৃতবাজার/ কেএসএস