ঢাকা, সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯ | ৩ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ওয়ালটন ফ্রিজে মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত গোল্ড এডিশন ব্যাট-বল


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৬ এএম, ০১ জুন ২০১৯, শনিবার
ওয়ালটন ফ্রিজে মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত গোল্ড এডিশন ব্যাট-বল

ক্রিকেট বিশ্বকাপ উপলক্ষে ফ্রিজের ক্রেতাদের নানান সুবিধা দিচ্ছে ওয়ালটন। যে কোনো মডেলের ওয়ালটন রেফ্রিজারেটর এবং ফ্রিজার কিনলে ক্রেতাদের জন্য রয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা স্বাক্ষরিত গোল্ড এডিশন প্রতীকী ব্যাট-বল এবং ক্রিকেট ব্যাট পাওয়ার সুযোগ। আছে হাজার হাজার টিভিসহ বিভিন্ন পণ্য ফ্রি এবং কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার।

ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, ১ জুন থেকে শুরু হওয়া এ সুবিধা থাকবে পুরো বিশ্বকাপ জুড়ে। এ সময় যে কোনো ওয়ালটন প্লাজা, পরিবেশ শোরুম এবং ই-প্লাজা থেকে ফ্রিজ কিনে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে রেজিস্ট্রেশন করে ক্রেতারা উক্ত সুবিধা পেতে পারেন।

ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক ও রেফ্রিজারেটর বিভাগের সিইও গোলাম মুর্শেদ জানান, বিশ্বকাপের ঠিক আগে ওয়ালটনের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হন মাশরাফি বিন মুর্তজা। এরফলে আগামি ২ বছর বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটনের বিভিন্ন প্রমোশনে অংশ নেবেন জনপ্রিয় এই ক্রিকেট অলরাউন্ডার। এরই ধারাবাহিকতায় ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন ফোর-এ ক্রেতাদের জন্য মাশরাফির অটোগ্রাফযুক্ত গোল্ড এডিশন ব্যাট-বল কিংবা ক্রিকেট ব্যাট পাওয়ার সুযোগ রেখেছে ওয়ালটন।

তিনি বলেন, আয়ারল্যান্ডে সদ্যসমাপ্ত ওয়ালটন ট্রাই-নেশন সিরিজ জিতে দারুণ ফর্মে আছে মাশরাফি-তামিম-সাকিব-মুশফিকরা। বিশ্বকাপের মাঝেই পড়েছে ঈদ। এই দুই বড় ইভেন্টকে উপলক্ষ্য করে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ওয়ালটন ফ্রিজ ক্রেতাদের মাশরাফি স্বাক্ষরিত ব্যাট-বল এবং ক্রিকেট ব্যাট দেয়া হচ্ছে। আশা করছি আমাদের এই উদ্যোগ ক্রেতাদের বিশ্বকাপ এবং ঈদের আনন্দে বাড়তি মাত্রা যোগ করবে।

ওয়ালটন ফ্রিজের প্রোডাক্ট ম্যানেজার শহীদুজ্জামান রানা জানান, ২০১৯ সালে ২০ লাখ ফ্রিজ বিক্রির টার্গেট নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। যার নাম দেয়া হয়েছে ‘১৯ এ ২০’। লক্ষ্যমাত্রা পূরণে গ্রাহকদের জন্য ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী, পরিবেশবান্ধব এবং সৃজনশীল ডিজাইনের শতাধিক মডেলের ফ্রিজ। এর মধ্যে রয়েছে ১০১ মডেলের ফ্রস্ট ও ২০ মডেলের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর, ১৬ মডেলের ফ্রিজার এবং ২ মডেলের বেভারেজ কুলার।

ওয়ালটন ফ্রস্ট ফ্রিজের মধ্যে রয়েছে চোঁখ ধাধানো ডিজাইনের ৩৪ মডেলের গ্লাস ডোর, ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির ৪ মডেলসহ বিএসটিআই’র ‘ফাইভ স্টার’ এনার্জি রেটিং প্রাপ্ত ৩ মডেলের ফ্রিজ। গ্লাস ডোরে ২১টি সহ মোট ৩৮টি নতুন মডেলের ফ্রস্ট ফ্রিজ বাজারে ছাড়া হয়েছে। এর মধ্যে আছে ইনভার্টার প্রযুক্তির কম্প্রেসর সমৃদ্ধ গ্লাস ডোরের ৩৮০ লিটারের ৩টি নতুন মডেল। এসব ফ্রিজ স্ট্যাবিলাইজার ছাড়াই নিশ্চিন্তে চলবে।

এদিকে ওয়ালটন বাজারে ছেড়েছে ৬টি নতুন মডেল নন-ফ্রস্ট ফ্রিজ। এর মধ্যে ইনভার্টার ও গ্লাস ডোরের ৫৬৩ লিটারের সাইড বাই সাইড ডোরের নন-ফ্রস্ট রেফ্রিজারেটর গ্রাহক পর্যায়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

আন্তর্জাতিক মান যাচাইকারি সংস্থা নাসদাত ইউনিভার্সাল টেস্টিং ল্যাব থেকে মান নিশ্চিত করে ওয়ালটন প্রতিটি ফ্রিজ বাজারে ছাড়ছে। ইন্টেলিজেন্ট ইনভার্টার, ন্যানো হেলথ কেয়ার ও এন্টি ফাংগাল ডোর গ্যাসকেট প্রযুক্তি ব্যবহার করছে ওয়ালটন। সম্প্রতি ফ্রিজ কম্প্রেসরের গ্যারান্টি সুবিধা আরো দুই বছর বাড়িয়ে ১২ বছরের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। এছাড়াও ওয়ালটন ফ্রিজে রয়েছে ১ বছরের রিপ্লেসমেন্ট গ্যারান্টি সুবিধাসহ দ্রুত বিক্রয়োত্তর সেবার নিশ্চয়তা।

উল্লেখ্য, এর আগে ডিজিটাল ক্যাম্পেইনে ক্রেতারা নতুন গাড়ি, আমেরিকা ও রাশিয়া ভ্রমণের ফ্রি বিমান টিকিট ছাড়াও কোটি কোটি টাকার ক্যাশ ভাউচার, মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, টিভি, এসিসহ বিভিন্ন ওয়ালটন পণ্য পেয়েছেন।

অমৃতবাজার/আরএইচ