ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ মে ২০১৯ | ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

আরো গ্রাহকবান্ধব উদ্ভাবনী প্রযুক্তি পণ্য তৈরির ঘোষণা ওয়ালটনের


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১:৫৫ পিএম, ১৩ মার্চ ২০১৯, বুধবার
আরো গ্রাহকবান্ধব উদ্ভাবনী প্রযুক্তি পণ্য তৈরির ঘোষণা ওয়ালটনের

বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচার সমৃদ্ধ ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদনের ঘোষণা দিয়েছে ওয়ালটন। সে লক্ষ্যে ইতোমধ্যে বিভিন্ন প্রকল্প ও কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে আইওটি বেজড স্মার্ট ও আয়োনাইজার প্রযুক্তির পণ্য তৈরি করা। যা বিশ্বের যেকোনো প্রান্ত থেকেই স্মার্ট ফোনের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। মূলকথা, বিশ্বের সেরা প্রযুক্তিপণ্য এখন বাংলাদেশেই তৈরি করবে দেশের ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট ওয়ালটন।

বুধবার (১৩ মার্চ) গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন সদর দপ্তরে ‘ওয়ালটন প্লাজা ম্যানেজার ও ডিলার কনফারেন্স-২০১৯’ এ এসব তথ্য জানানো হয়।

বুধবার সকালে বেলুন উড়িয়ে সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম নুরুল আলম রেজভী, ভাইস চেয়ারম্যান এস এম শামসুল আলম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক এস এম আশরাফুল আলম ও পরিচালক এস এম মাহবুবুল আলম।

এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ওয়ালটনের পরিচালক এস এম মঞ্জুরুল আলম, নির্বাহী পরিচালক ইভা রিজওয়ানা, এমদাদুল হক সরকার, এস এম জাহিদ হাসান, হুমায়ূন কবির, মোহাম্মদ রায়হান, গোলাম মুর্শেদ, গবেষণা ও উন্নয়ন বিভাগের প্রধান তাপস কুমার মজুমদার প্রমুখ।

চিত্রনায়ক আমিন খানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত হয় দেশের ইলেকট্রনিক্স পণ্য ব্যবসায়ীদের বৃহৎ ওই সম্মেলন। আজ ছিল এ সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন। এতে অংশ নেন সারা দেশ থেকে আসা দুই সহস্রাধিক ওয়ালটন প্লাজা ম্যানেজার ও ডিলার। তাদের আগমন ও পদচারণায় উৎসবমুখর হয়ে উঠে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ প্রাঙ্গণ। এর আগে মঙ্গলবার সম্মেলনের প্রথম দিনে অংশ নেন ওয়ালটনের দুই হাজারেরও বেশি ব্যবসায়ী।

এস এম আশরাফুল আলম বলেন, শুধু মুনাফা অর্জনের উদ্দেশ্যে ওয়ালটন ব্যবসা করে না। বরং দেশপ্রেমের চেতনায় বাংলাদেশের মানুষের হাতে সাশ্রয়ী মূল্যের প্রযুক্তি পণ্য পৌঁছে দেওয়াই মুখ্য উদ্দেশ্য। সেজন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ও ফিচারের আরো গ্রাহকবান্ধব পণ্য তৈরির প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। ইউরোপ, আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়াসহ আন্তর্জাতিক বাজারের শীর্ষ দেশগুলোকে টার্গেট করে বিশ্বের সেরা প্রযুক্তি পণ্য উৎপাদনের কাজ শুরু করেছি আমরা। শৈল্পিক সৌন্দর্য, মান, আভিজাত্য, ধারণক্ষমতা, সাশ্রয়ী দাম এবং সর্বাধুনিক ফিচার ইত্যাদি বিচারে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত প্রযুক্তি পণ্য হবে বিশ্বসেরা। এসব পণ্য স্থানীয় গ্রাহকরা পাবেন অত্যন্ত সাশ্রয়ী মূল্যে।

সম্মেলনে অংশ নেওয়া প্লাজা ম্যানেজার ও ডিলাররা সরেজমিনে ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডে ফ্রিজ, টেলিভিশন, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, লিফট বা এলিভেটর, কম্প্রেসর, ওয়াশিং মেশিন, ওভেনসহ অসংখ্য ইলেকট্রনিক্স, ইলেকট্রিক্যাল ও হোম অ্যাপ্লায়েন্সেসের উৎপাদন ইউনিট ঘুরে দেখেন। তারা বিশ্বের লেটেস্ট প্রযুক্তি ও মেশিনারিজ সমৃদ্ধ উৎপাদন প্রক্রিয়া ও ওয়ালটনের আন্তর্জাতিক মানের কারখানা দেখে মুগ্ধ হন। সেই সঙ্গে ওয়ালটন পরিবারের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পেরে তারা গর্ববোধ করেন।

দিনব্যাপী সম্মেলনে ওয়ালটনের মার্কেট শেয়ার বৃদ্ধিতে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ সেরা প্লাজা ম্যানেজারদের পুরস্কৃত করা হয়। মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে শেষ হয় সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন। বৃহস্পতিবার সম্মেলনের তৃতীয় ও শেষদিনে যোগ দেবেন ওযালটনের সহযোগী ব্র্যান্ড মার্সেলের সহস্রাধিক পরিবেশক।

অমৃতবাজার/আরবি