ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৪ মে ২০১৮ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘চট্টগ্রাম বন্দরের উন্নয়নে কৌশলগত মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে’


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৭:১৬ পিএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, মঙ্গলবার
‘চট্টগ্রাম বন্দরের উন্নয়নে কৌশলগত মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে’

চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের (সিপিএ) চেয়ারম্যান কমোডর জুলফিকার আজিজ বলেছেন, বর্তমান সরকারের ‘ভিশন-২০২১’ অনুযায়ী চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রম আরো সহজ করতে স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী কৌশলগত মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার চট্টগ্রাম বন্দর দিবস পালন উপলক্ষে শহীদ মুন্সি মিলনায়তনে এক মতবিনিময় সভায় বন্দর চেয়ারম্যান বলেন, বন্দরে ক্রমবর্ধমান কার্গো, কন্টেইনার ও ভেসেল হ্যান্ডেলিং কার্যক্রম বৃদ্ধি মোকাবেলায় সিপিএ স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদী কৌশলগত মহাপরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।

চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমান সরকারের নির্দেশনার অংশ হিসেবে হ্যান্ডেলিং এর সরঞ্জামাদি ক্রয়ের পর নিউমুরিং কন্টেইনার টার্মিনাল সম্পূর্ণরূপে কার্যকর করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

জুলফিকার বলেন, নয়টি রাবার টায়ার গ্যান্ট্রি ক্রেন, চারটি স্ট্যাডের ক্যারিয়ার, পাঁচটি কন্টেইনার মুভার, ওয়ান রেল মাউন্টেইন গ্যান্ট্রিা ক্রেন ইতোমধ্যেই বহরে যোগ করা হয়েছে এবং তিনটি স্ট্র্যাডেল কেরিয়ার শিগগিরই বন্দরে পৌঁছবে বলে আশা প্রকাশ করেন।

তিনি বলেন, বন্দরের কার্যক্রম আরো গতিশীল ও বহুমাত্রিক করতে ছয়টি শিপ টু শিপ শোর গ্যান্ট্রি ক্রেন, দুইটি রাবার টায়ার গ্যান্ট্রি ক্রেন এবং একটি মোবাইল হার্বার ক্রেনের জন্য এলসি খোলা হয়েছে।

দিবসটি পালন উপলক্ষে সকালে সিপিএ রিপাবলিকান ক্লাবে চট্টগ্রামের ঐতিহ্যবাহী মেজবানসহ, দিনব্যাপী আলোচনা, মতবিনিময়, বর্ণাঢ্য সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

দিবসটির শুরুতে বন্দর ভবনে জাতীয় ও সিপিএ-র পতাকা উত্তোলন এবং বিকেলে বন্দরের অবসরপ্রাপ্ত কর্মচারিদের সংবর্ধনা দেয়া হয়।

মত বিনিময় সভায় চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (অর্থ) কামরুল আমিন, হার্বার মাস্টার কমোডর শাহিন রহমান, ক্যাপ্টেন খন্দকার আকতার হোসেন এবং বন্দর সচিব ওমর ফারুক উপস্থিত ছিলেন।-বাসস

অমৃতবাজার/শাওন