ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ | ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ইজেনারেশন লিমিটেডের প্রাক-আইপিওতে অংশীদার ইউনাইটেড গ্রুপ


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৪:২৭ পিএম, ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, রোববার
ইজেনারেশন লিমিটেডের প্রাক-আইপিওতে অংশীদার ইউনাইটেড গ্রুপ

ইজেনারেশন লিমিটেডের প্রাক-আইপিও (ইনিশিয়াল পাবলিক অফারিং) আবেদনে অংশীদার হয়েছে দেশের অন্যতম সম্মানিত শিল্পগোষ্ঠী ইউনাইটেড গ্রুপ। দেশের শীর্ষস্থানীয় আইটি কনসালটিং ও সফটওয়্যার সল্যুউশন কোম্পানি ইজেনারেশন লিমিটেড আগামী মাসে দেশের প্রথম সফটওয়্যার প্রযুক্তি কোম্পানি হিসেবে আইপিওতে যাচ্ছে। এটি চলতি বছরে অংশ নিতে যাওয়া সেরা প্রযুক্তি আইপিওগুলোর মধ্যে একটি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

বাংলাদেশি এই কোম্পানিটি বর্তমানে উদ্ভাবনীমূলক প্রযুক্তিতে প্রধান গুরুত্ব দিচ্ছে এবং যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সংযুক্ত আরব আমিরাত, রাশিয়া, উগান্ডা, জাপান, কানাডা, ডেনমার্ক, ফিলিপাইন, সৌদি আরব এবং ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ভালো পরিমান গ্রাহক সংগ্রহ করতে পেরেছে। শেয়ার বাজারে ইজেনারেশন লিমিটেডের সফলভাবে প্রবেশ দেশের অন্যান্য সফটওয়্যার কোম্পানির ক্ষেত্রে আইপিওর মাধ্যমে মূলধন বৃদ্ধির পথ সুগম হবে।

ইউনাইটেড গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনুদ্দিন হাসান রশিদ এবং ইজেনারেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান শামীম আহসান নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে এ বিষয়ে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন। শনিবার ইউনাইটেড গ্রুপের কার্যালয়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ইউনাইটেড গ্রুপের কোম্পানি সচিব বি এইচ খান, ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড কোম্পানি লিমিটেডের স্টক ট্রেডিং ডিভিশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বদরুল আহসান, ইউনাইটেড গ্রুপের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা ইবাদত হোসেন ভুঁইয়া, ইউনিমার্ট লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোর্তজা জামান, ইউনাইটেড গ্রুপের সহযোগি পরিচালক ফাহাদ খান এবং ইজেনারেশন গ্রুপের পক্ষে কোম্পানির এক্সিকিউটিভ ভাইস-চেয়ারম্যান এসএম আশরাফুল ইসলাম, পরিচালক রুমি এফ. আহসান, প্রধান ব্যবসায় উন্নয়ন কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন খান, প্রধান বিপণন কর্মকর্তা মিরাজুল হক এবং পরিচালনা বিভাগের প্রধান এমরান আবদুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন।

ইউনাইটের গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মঈনুদ্দিন হাসান রশিদ বলেন, দেশের পাওয়ার, স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষা, আবাসন, বন্দর ও সামুদ্রিক, টেক্সটাইল এবং অন্যান্য উৎপাদন খাতে ইউনাইটেড গ্রুপের বিনিয়োগের মাধ্যমে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশে ভিশন ২০২১ বাস্তবায়নে সহযোগিতা করছি। আমরা ইজেনারেশনের সাথে হাতে মেলাতে পেরে গর্বিত, কারণ আমরা বিশ্বাস করি তাদের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি যেমন ডাটা অ্যানালাইটিক্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ব্লকচেইন, ইন্টারনেট অব থিংস এবং সাইবার সিকিউরিটিতে যথাযথ দক্ষতা আছে এবং বেসরকারি খাত থেকে সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন বাস্তবায়নে অগ্রণী ভূমিকা রাখছে।

ইজেনারেশন গ্রুপের চেয়ারম্যান শামীম আহসান বলেন, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) থেকে ফান্ড বৃদ্ধির জন্য ইজেনারেশন অনুমোদন পেয়েছে। আমরা সম্প্রতি প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের মাধ্যমে শেয়ার প্লেসমেন্টের কাজ শুরু করেছি, যা মূলধনের পাশাপাশি আমাদের ব্যবসায়ের কৌশলগত মানও বৃদ্ধি করবে। আমাদের অংশীদার হিসেবে ইউনাইটেড গ্রুপকে পেয়ে আমরা গর্বিত। ইউনাইটেড গ্রুপের পর আরও কিছু বড় শিল্পগোষ্ঠী ইজেনারেশনে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে। এ ধরণের অংশীদারিত্ব দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতে নতুন মাত্রা যোগ করবে।

ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেড, ইউনিমার্ট লিমিটেড, ইউনাইটেড এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড কোম্পানি লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, ইউনাইটেড ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড পাওয়ার সার্ভিসেস লিমিটেড, ইউনাইটেড প্রোপার্টি সল্যুউশনস লিমিটেড, ইউনাইটেড পূর্বাচল ল্যান্ডস লিমিটেড, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি, খুলনা পাওয়ার কোম্পানি ইত্যাদি ইউনাইটেড গ্রুপের মালিকানাধীন কোম্পানিগুলোর মধ্যে অন্যতম স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান।

ইজেনারেশন স্থানীয়ভাবে কৃষি মন্ত্রণালয়, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগসহ সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সাথে বিজনেস প্রসেস অটোমশন, সিস্টেম ইন্টিগ্রেশন, প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট ও প্রশিক্ষণ প্রদানের কাজ করছে। একইসাথে দেশের প্রধান আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে সাইবার সিকিউরিটি সল্যুউশন সেবা দিচ্ছে ইজেনারেশন।

অমৃতবাজার/মাসুদ