ঢাকা, রোববার, ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মীমাংসার আহ্বান বাংলাদেশের


অমৃতবাজার রিপোর্ট 

প্রকাশিত: ০৯:৪৫ এএম, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার | আপডেট: ০৯:৪৭ এএম, ২১ নভেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে মীমাংসার আহ্বান বাংলাদেশের

বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে স্বচ্ছতা ও বস্তুনিষ্ঠতার সাথে একটি সুনির্দিষ্ট মীমাংসার কৌশল গ্রহণের জন্য মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেনের বরাত দিয়ে প্রাপ্ত এক বার্তায় বলা হয়েছে, “আমরা বিশ্বাস করি, মীমাংসাটাই রোহিঙ্গাদের মানবিক সংকট নিরসনের একমাত্র পন্থা হতে পারে, যে সংকটের চাপ আমরা প্রতিনিয়ত সহ্য করছি।”

জাতিসংঘ সদরদপ্তরে ইউএনএসসি ‘দ্য রোল অব রিকনসিলিয়েশন ইন মেইনটেইনিং ইন্টারন্যাশনাল পিস অ্যান্ড সিকিউরিটি’ শীর্ষক একটি উন্মুক্ত বিতর্কের আয়োজন করে। ওই অনুষ্ঠানে মাসুদ বিন মোমেন একথা বলেন। রাষ্ট্রদূত মাসুদ রোহিঙ্গাদের সাথে মিয়ানমারের অন্যান্য সমাজ ও মিয়ানমার কর্তৃপক্ষের আলাপের মাধ্যমে আপোষ করে রাখাইনে অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টির প্রয়োজনীয়তার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

তিনি নারী ও তরুণদের প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ এবং আন্তর্জাতিক মানবিক আইন ও মানবাধিকার আইনের গুরুতর লংঘনের জবাবদিহিতা ও বিচার নিশ্চিত করার জন্য মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

এ ব্যাপারে, রাষ্ট্রদূত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ নেতৃত্বে ১৯৯৭ সালে বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামে করা সফল মীমাংসার উদাহরণ তুলে ধরেন। তিনি বিভিন্ন দেশকে সংঘাত থেকে উত্তরণে শান্তিরক্ষী বাহিনী, জাতীয় ও স্থানীয় আপোষ মীমাংসার কৌশলে বাংলাদেশের অবদানের কথা তুলে ধরেন।

বাংলাদেশী স্থায়ী প্রতিনিধি মিয়ানমার সমাজের সাথে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর পুনরেকত্রীকরণের মাধ্যমে আপোষ মীমাংসার মাধ্যমে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে একটি টেকসই শান্তি স্থাপনের জন্য জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানান।

জাতিসংঘ মহাসচিবও এ ব্যাপারে বলেন, ‘ন্যায়বিচার ছাড়া কোন আপোষ মীমাংসাই ফলপ্রসু হবে না। যুক্তরাজ্যের সভাপতিত্বে এই উন্মুক্ত বিতর্ক হয়।

অমৃতবাজার/এএস