ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০১৯ | ১২ বৈশাখ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

‘শিগগিরই দেশে ফিরবেন ওবায়দুল কাদের’


অমৃতবাজার রিপোর্ট

প্রকাশিত: ১১:০৭ পিএম, ১৫ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার
‘শিগগিরই দেশে ফিরবেন ওবায়দুল কাদের’

 

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সিঙ্গাপুরে ‍চিকিৎসাধীন থাকলেও নিয়মিত দেশের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন।

তিনি বিদেশে অবস্থান করলেও সেখান থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ড, রাজনীতি এবং দলের বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজ-খবর রাখছেন। সময় কাটছে তার দেশের বিভিন্ন টিভি চ্যানেল এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম বিবিসি দেখে। তিনি ভালো আছেন এবং শিগগিরই দেশে ফিরবেন।

সোমবার (১৫ এপ্রিল) ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে সাক্ষাত শেষে দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) এর উপাচার্য কনক কান্তি বড়ুয়াকে এসব কথা জানান শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটির কার্ডিওলোজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মো. হারিসুল হক।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের চিকিৎসার খোঁজ-খবর নেওয়ার জন্য অধ্যাপক ডা. হারিসুল হককে সেখানে পাঠান। তিনি গত ১০ এপ্রিল সিঙ্গাপুরে যান এবং দেশে ফিরে আসেন ১৪ এপ্রিল। আজ ১৫ এপ্রিল তিনি উপাচার্যকে সব বিষয়ে অবহিত করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রশান্ত কুমার মজুমদার পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক (পরিকল্পনা ও উন্নয়ন) ও নিউরো মেডিসিনি বিভাগের অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী বর্তমানে সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন। অধ্যাপক ডা. আবু নাসার রিজভী বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে মন্ত্রীর সঙ্গেই সিঙ্গাপুরে যান।

হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক জানান, বর্তমানে ওবায়দুল কাদেরের হৃদযন্ত্রের কার্যকারিতা ভালো। উচ্চ রক্তচাপ ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। তিনি নিয়মিত (দুইবেলা) হাঁটাচলা করছেন। আগামীকাল ১৬ এপ্রিল তার চিকিৎসার বিষয়ে একটি ফলোআপ রয়েছে। তারপরই সিদ্ধান্ত হবে তিনি কবে দেশে ফিরবেন।

বিএসএমএমইউ’র এই বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক জানান, বর্তমানে ওবায়দুল কাদের দেশে ফেরার মতো অবস্থায় রয়েছেন। তবে তার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ওষুধের সঠিক ডোজ নিরূপণের জন্য আরও কিছুদিন সিঙ্গাপুরে থাকা প্রয়োজন এবং সে কারণেই মন্ত্রী সিঙ্গাপুরে অবস্থান করছেন।

অধ্যাপক ডা. হারিসুল হক জানান, ওবায়দুল কাদের নববর্ষ উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তিনি নিজেই এ বিষয়ে একটি শুভেচ্ছা বাণী লিখেছেন। এছাড়াও বাংলাদেশ থেকে কেউ গেলে তিনি তাদেরও খোঁজ-খবর নিচ্ছেন।

অমৃতবাজার/এএস