ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০১৯ | ৬ আষাঢ় ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

প্রধানমন্ত্রী আমাকে ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন: বদিউজ্জামান


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৮:৩১ পিএম, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার
প্রধানমন্ত্রী আমাকে ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন: বদিউজ্জামান

 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা চেষ্টায় হুজি নেতা মুফতি হান্নান ২০০০ সালের ২০ জুলাই আওয়ামী লীগের জনসভায় ৭৬ কেজি ওজনের বোমা পেতে রেখেছিলেন।

কিন্তু সেই চেষ্টাকে ব্যর্থ করে দেয় সামান্য একজন চায়ের দোকদার বদিউজ্জামান।

জনসভার আগের দিন সকালে সভাস্থলের পাশের চায়ের দোকানদার বদিউজ্জামান সরদার পুকুরে চায়ের কেতলি ধুতে গিয়ে একটি তার দেখতে পায়।

খবর পেয়ে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ছুটে আসে। শুরু হয় তল্লাশি। সন্ধান মেলে ৭৬ কেজি ওজনের বোমা। বেঁচে যায় শেখ হাসিনাসহ শত শত নেতাকর্মী।

তারপর কেটে গেছে ১৯টি বছর।

শত চেষ্টা করেও প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করতে পারেনি বদিউজ্জমান সরদার। পরপর তিনবার আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসায় কোটালীপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের অনেক নেতার ভাগ্যের চাকা ঘুরলেও ঘোরেনি বদিউজ্জামান সরদারের ভাগ্যের চাকা। বদিউজ্জামান সরদার যে চায়ের দোকানদার সে চায়ের দোকানরাই রয়ে যান।

তবে সম্প্রতি বদিউজ্জামান সরদার উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক সোহরাব হোসেন হাওলাদারের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেন।

এ ব্যাপারে সোহরাব হোসেন হাওলাদার বলেন, গত ২৭ জানুয়ারি বদিউজ্জামান সরদারকে নিয়ে আমি প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করি। সে উদার মনে বদিউজ্জামানের সঙ্গে কথা বলেন। এর পর গত রবিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার দপ্তরে বসে বদিউজ্জামানের হাতে ৫০ লাখ টাকার চেক তুলে দেন।

এ বিষয়ে বদিউজ্জামান সরদার বলেন, দীর্ঘ ১৯ বছর আমি প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু কোন নেতাই আমাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করার সুযোগ করে দেয়নি। সর্বশেষ সোহরাব হোসেন হাজরা আমাকে প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করার সুযোগ করে দেয়।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী মনখুলে আমার সঙ্গে কথা বলেছেন। তিনি আমাকে ৫০ লাখ টাকা দিয়েছেন। তার এই মহানুভবতায় আমি অত্যন্ত খুশি। দোয়া করি আল্লাহ যেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালো রাখেন। 

অমৃতবাজার/এএস