ঢাকা, রোববার, ২২ এপ্রিল ২০১৮ | ৯ বৈশাখ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আজ বুধবার চট্টগ্রাম যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী


চট্টগ্রাম সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ০৮:০৭ এএম, ২১ মার্চ ২০১৮, বুধবার
আজ বুধবার চট্টগ্রাম যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

চট্টগ্রামবাসীর জন্য ৪২টি উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে আজ চট্টগ্রাম আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার সকালে চট্টগ্রামের বিএনএ এবং ঈসা খান প্যারেড গ্রাউন্ডে বিএন ডকইয়ার্ডকে ন্যাশনাল স্ট্যান্ডার্ড (জাতীয় পতাকা) প্রদান এবং বঙ্গবন্ধু কমপ্লেক্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন তিনি।

চট্টগ্রামের পটিয়া কলেজ মাঠে দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যেগে এ জনসভায় বক্তব্য দেবেন শেখ হাসিনা। পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে বিকালে ভাষন দেবেন আওয়ামী লীগ সভানেত্রী। জনসভায় কয়েক লাখ লোকসমাগম হবে বলে আশা করছেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতারা।

প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে ঘিরে চট্টগ্রাম থেকে পুটিয়া পর্যন্ত নগরীর গলি থেকে রাজপথ, সড়কদ্বীপসহ গোটা শহরেই রংবেরঙের ব্যানার, ফেস্টুন, বিলবোর্ড ও তোরণ দিয়ে সাজানো হয়েছে। বঙ্গবন্ধু কন্যার আগমন উপলক্ষে চট্টগ্রাম থেকে পুটিয়া এখন নানা রঙের আলোকসজ্জার শোভা পাচ্ছে। রাতে প্রধান সড়কের বিভাজনগুলোকে রঙিন আলোয় ঝলমল করছে। দলীয় সূত্র জানায়, ১৭ বছর পর ৪২টি উন্নয়ন প্রকল্প নিয়ে চট্টগ্রামের পটিয়ায় আসছেন শেখ হাসিনা।

১৭ বছর পর পটিয়ায় আসছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দলের কেন্দ্রীয় ও চট্টগ্রামের একাধিক নেতারা মনে করেন রাজনীতির উর্বর জায়গা হিসেবে চট্টগ্রামকে দেখা হয়। প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের চাওয়ার কিছু নেই। চাওয়ার আগেই সব দিয়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। বিশেষভাবে দক্ষিণ চট্টগ্রামে। টানেল হচ্ছে, এটি স্বপ্ন নয় বাস্তব। এখানে ইকোনমিক জোন হচ্ছে। মেরিন ড্রাইভ শুরু করব ইনশাআল্লাহ। রেললাইন কক্সবাজার হয়ে ঘুমধুম পর্যন্ত যাচ্ছে। বাঁশখালী দিয়ে কক্সবাজারের বিকল্প সড়ক হবে। শাহ আমানত সেতু পার হলেই চার লেনের কাজ হচ্ছে। মহানগরে যে ফ্লাইওভারগুলো হয়েছে সেগুলো দক্ষিণ চট্টগ্রামের জন্যই হয়েছে। এখানে স্টেডিয়ামও হবে।

চট্টগ্রাম বিভাগের সাংগঠনিক দায়িত্বে থাকা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেন, প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ চট্টগ্রামের একটি উপজেলায় আসবেন, জনসভা করবেন, অনেক প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন ও উদ্বোধন করবেন।

দলীয় সূত্র জানায়, গত ১৭ বছর পর পটিয়ায় আসছেন প্রধানমন্ত্রী। ২০০৯ সালে আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবু থাকাবস্থায় এসেছিলেন কর্ণফুলীতে। ভূমি প্রতিমন্ত্রী মরহুম আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ছেলে সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ বলেন, মানুষের মনে উচ্ছ্বাস আছে। পরিকল্পনা করছি যাতে ১২টার দিকে নেতাকর্মীরা মাঠে চলে আসেন। শুধু জনসভার গাড়ি চলবে পটিয়ায়। কক্সবাজারের গাড়ি আনোয়ারা ঘুরে আসবে। লোকের যাতে কোনো ধরনের কষ্ট না হয় সেটি আমাদের মাথায় আছে।

অমৃতবাজার/জয়