ঢাকা, রোববার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১১ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা: স্পিকার


অমৃতবাজার ডেস্ক

প্রকাশিত: ০৬:৫৭ পিএম, ১৫ মার্চ ২০১৮, বৃহস্পতিবার
বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা: স্পিকার

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ একই সূত্রে গাঁথা।তিনি আজ নিজ নির্বাচনী এলাকায় পীরগঞ্জের জাহাঙ্গীরাবাদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে জেলা প্রশাসন আয়োজিত ‘মাদক নিয়ন্ত্রণ, বাল্যবিয়ে নিরোধ ও মাতৃমৃত্যু হ্রাসকরণ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

স্পিকার বলেন, বঙ্গবন্ধু জন্মেছিলেন বলেই পৃথিবীর মানচিত্রে জন্ম নিলো বাংলাদেশ। মার্চ বাঙ্গালী জাতির ইতিহাসে গৌরবের মাস। তিনি বলেন, ১৯৭১ এর ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ডাকে বাঙালী জাতি স্বাধীন পতাকা পেয়েছিল। ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবস। আবার ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ জন্মেছিলেন বাংলার রাখাল রাজা টুঙ্গীপাড়ার ‘খোকা’, তিনিই জাতির পিতা, স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

তিনি বলেন, সকল স্তরে উন্নয়ন সুবিধা পৌঁছাতে পারলেই সুষম উন্নয়ন নিশ্চিত হবে, অর্জিত হবে অর্ন্তভূক্তিমূলক প্রবৃদ্ধি। উন্নয়ন পরিকল্পনা সাজানোর সময় সমভাবে সকল এলাকাকে গুরুত্ব দিলেই সুষম উন্নয়ন হবে। এক্ষেত্রে উন্নয়নের আওতায় সকলেই উপকৃত হবে, কেউ পিছিয়ে থাকবে না।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, মাদকহীন সমাজ গঠনে যুব সমাজকে সচেতন করতে হবে, তাদেরকে যুব উন্নয়নের আওতায় প্রশিক্ষিত করে সক্ষম করে তুলতে হবে। কম্পিউটার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে তথ্য প্রযুক্তিতে যুব সমাজ যাতে যুক্ত হতে পারে সে লক্ষ্যে পীরগঞ্জে ৩৭ টি শেখ রাসেল কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন করা হয়েছে।

তিনি বলেন, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ করতে সকল স্তরের জনগণের সচেতনতা বাড়াতে একযোগে কাজ করতে হবে। ‘আগে বিয়ে নয়, সক্ষমতা অর্জন’, এলক্ষ্যে তথ্য প্রযুক্তি, সেলাই প্রশিক্ষণসহ উদ্যোক্তা হিসেবে কাজ করার সক্ষমতা অর্জন করতে তিনি নারী সমাজের প্রতি আহবান জানান।

সভার শুরুতে নেপালে বাংলাদেশী বিমান দুর্ঘটনায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

পীরগঞ্জ ১১নং পাঁচগাছা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মন্ডলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো বক্তব্য রাখেন রংপুর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি এ কে এম ছায়াদত হোসেন বকুল এবং পৌর মেয়র আবু সালেহ মো: তাজিমুল ইসলাম শামীম।

অমৃতবাজার/সাজ্জাদ